প্রতি ম্যাচেই আতঙ্ক ছড়াচ্ছেন মোস্তাফিজ,অবিশ্বাস্য ফিল্ডিং

0

রাজস্থান রয়েলস : ১৪৯/৯(২০.০ ওভারে)

রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু : ১৫৩/৩ (১৭.১ ওভারে)

ফল : বেঙ্গালুরু ৭ উইকেটে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : চাহাল (বেঙ্গালুরু)

স্লোয়ারের সঙ্গে কাটার দিয়ে আইপিএলের প্রতি ম্যাচেই আতঙ্ক ছড়াচ্ছেন মোস্তাফিজ। বৃহস্পতিবার দুবাইয়ের রাতেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। প্রথম ব্রেক থ্রু দিয়েছেন মোস্তাফিজ দেবদূত পাডিকালকে বোল্ড করে (২২)।

৪৮ রানের ওপেনিং পার্টনারশিপই শুধু নয়, রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর তৃতীয় জুটিও ৬৯ রানে থামিয়েছেন মোস্তাফিজ। ইনিংসের ১৬তম ওভারে শিখর ভারতকে (৪৪) কাটারের ফাঁদে ফেলে ফাইন লেগে ক্যাচ দিতে বাধ্য করেছেন।

১৬তম ওভারে ৪ রান খরচায় ব্রেক থ্রু দিয়ে ম্যাচটা জমিয়ে তুলেছিলেন মোস্তাফিজ। শেষ ২৪ বলে ২৩ রানের টার্গেটে শেষ ওভার থ্রিলারের অপেক্ষায় ছিল দর্শক। তবে  পরের ওভারে মরিস ২২ রান খরচ করে ম্যাচটা রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হাতে দিয়ে এসেছেন। ১৫০ চেজ করে ৭ উইকেটের বিশাল জয় পেয়েছে কোহলির দল ১৭ বল হাতে রেখে। ১৬ কোটি রূপীর মরিসের বোলিংটা যেখানে ৪-০৫০-০, সেখানে ১ কোটি ১০ লাখ রূপীর মোস্তাফিজের ৩-০-২০-২! চলমান আইপিএলে ১০ ম্যাচে ১৩ উইকেট নিয়ে রাজস্থানের সবচেয়ে  মিতব্যয়ী বোলার মোস্তাফিজ।

এমন দারুণ বোলিংই শুধু নয়, অবিশ্বাস্য ফিল্ডিং করেছেন মোস্তাফিজ এদিন। ৯ম ওভারের ৫ম বলে কার্তিগ তিওয়াগির শর্ট বলে ম্যাক্সওয়েল করেছিলেন পুল, ফাইন লেগের উপর দিয়ে অবধারিত ছক্কা ধরে নিয়েছিল সবাই। তবে অন্তত: চার ফুট শুন্যে লাফিয়ে ঠিক ভলিবলের স্ন্যাচের মতো ওই বলটি আকাশ থেকে মাঠের ভেতরে নামিয়ে বাঁচিয়ে দিয়েছেন মোস্তাফিজ ৫ রান !

ঠিক যেনো জন্টি রোডসের ফিল্ডিং মনে করিয়ে দিয়েছেন মোস্তাফিজ। এই অবিশ্বাস্য রান সেভ এর দৃশ্যটি হয়েছে ভাইরাল। ওই সেভ-এর ভিডিও দিয়ে ইউটিবারদের বানিজ্যটাও ভালই হয়েছে।

মোস্তাফিজের এমন কৃতির পাশে এদিন টিমমেট ওপেনার ইভিন লুইসের ফিফটি (৩৭ বলে ৫ চার, ৩ ছক্কায় ৫৮) ছিল বলার মতো। তবে ১৪৯/৯ স্কোর নিয়ে লড়ার মতো বোলার মোস্তাফিজ ছাড়া কাউকে পাননি রাজস্থান অধিনায়ক স্যামসাং। ম্যাক্সওয়েল ঝড় (৩০ বলে ৬ চার, ১ ছক্কায় ৫০*), শ্রীকর ভারতের (৩৫ বলে ৪৪) বোলিংয়ে রাজস্থানকে হারিয়ে সেরা চার-এ ওঠার সম্ভাবনা তৈরি করেছে বেঙ্গালুরু (১১ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট)। সেখানে টানা ৩ হারে রাজস্থানের সংগ্রহ ১১ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট।

এই ম্যাচে দারুণ মিতব্যয়ী বোলিংয়ের জন্য (৪-০১৮-২) ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন বেঙ্গালুরুর লেগ স্পিনার যুগেন্দ্র চাহাল।