Monday, December 16, 2019
Monday, December 16, 2019

খেলাধুলা

সিরিজের আবিষ্কার মোহাম্মদ নাঈম

Monday, November 11, 2019

ক্রিড়া ডেস্ক: ১২ রানে ২ উইকেট হারানো বাংলাদেশ দল নাগপুরের শেষ ম্যাচে জয়ের সম্ভাবনা জাগিয়ে রেখেছিল মূলত মোহাম্মদ নাঈমের ব্যাটিংয়ের কল্যাণেই।

Mohammad Naim of Bangladesh bats during the 2nd T20I match between India and Bangladesh held at the Saurashtra Cricket Association Stadium, Rajkot on the 7th November 2019.
Photo by Deepak Malik / Sportzpics for BCCI

ধারাভাষ্য কক্ষে বসা সুনীল গাভাস্কারের গলায় মুগ্ধতা ‘ওয়াও, হোয়াট অ্যা শট!’ তার সঙ্গী আতহার আলী খানও মোহিত-‘এলিগেন্ট ড্রাইভ। সুপার্ব এক্সিকিউশান!’ ফেসবুকে স্ক্রল করতেই দেশের প্রখ্যাত ক্রীড়া সাংবাদিক উৎপল শুভ্র’র স্ট্যাটাস মিলল-‘দিস কিড ক্যান ব্যাট’। সেই স্ট্যাটাসের নিচেই আরেক অভিজ্ঞ ক্রীড়া সাংবাদিক ও বিশ্লেষক অঘোর মন্ডলের মন্তব্য-‘হি হ্যাস ডান দ্যাট।’ প্রশংসা সূচক এই মন্তব্যগুলো মোহাম্মদ নাঈমের ব্যাটিং নিয়ে।

শুরুটা একটু দেখেশুনে করলেন এই বাঁহাতি। তারপর যখন শটস খেলতে শুরু করলেন তখন পুরো মাঠ এবং গ্যালারি জুড়ে সুনশান নিরবতা! বাংলাদেশি এই তরুণের পাওয়ার ব্যাটিং দেখে দর্শকরা পর্যন্ত বিস্মিত এবং হতবাক। যুগবেন্দ্র চাহালকে এমনভাবে কেউ মারতে পারে? এত প্রভাবী ব্যাটিং করতে পারে? এটা যে তাদের কারোর জানাই ছিল না! সেই বিস্ময়ের ঘোর কাটতে না কাটতেই তারা দেখল ম্যাচ জয়ের অবস্থানে দাঁড়িয়ে গেছে বাংলাদেশ! যার পুরো কৃতিত্ব মোহাম্মদ নাঈমের ঝলমলে ৮১ রানের ইনিংসের।

চাহালকে তার প্রথম ওভারের প্রথম তিন বলেই বাউন্ডারি হাঁকান মোহাম্মদ নাঈম। সেই ওভারে চাহালের খরচা ১৫ রান। যার ১৪ রানই এলো মোহাম্মদ নাঈমের ব্যাটে।

নাঈম ও মিঠুন তৃতীয় উইকেট জুটিতে যেভাবে সামনে বাড়ছিল দলের ইনিংস তাতেই নাগপুরের ম্যাচে বিজয়ী মঞ্চে সম্ভাবনার নিক্তিতে বাংলাদেশের নামটাই বেশি উজ্জ্বলতা ছড়াচ্ছিল। মাত্র ৩৪ বলে টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে নিজের প্রথম হাফসেঞ্চুরি পুরো করেন মোহাম্মদ নাঈম। ৭ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় আসা তার শুরুর ৫৩ রানের এই ইনিংসের প্রতিটি শটস নিখুঁত ক্রিকেটীয় ব্যাকরণ সম্মত।

আইএনবি/বিভূঁইয়া