সকাল ১০:১২, মঙ্গলবার, ২১শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং

সর্দিকাশিকে ঘরোয়া উপায়ে বিদায় জানান ! লাইফ স্টাইল

আইএনবি নিউজ টোয়েন্টিফোর.কম

নভেম্বর ১৩, ২০১৭

লাইফষ্টাইল ডেস্ক: শীত প্রায় চলেই এলো। এই সময় ঠাণ্ডা লাগা, সর্দিকাশি, গলা ব্যাথা সহ আরও কত কি যে পিছু নেয়, তা বলার কথা নয়! এমন কিছু ঘরোয়া উপাদান আছে যা দিয়ে ঠাণ্ডা লাগা, সর্দিকাশি, গলা ব্যাথার মতো সমস্যাকে সহজেই দূর রাখা সম্ভব। আসুন জেনে নেওয়া যাক সেই সব উপাদানের গুলো-

আদা চা
আদা চা খেতে কেমন লাগে আপনার? বেশ ভাল নিশ্চয়। জানেন কি, এই সুস্বাদু আদা চা সর্দি, কাশিতে দারুণ কাজ করে। এই বিশেষ ধরনের চাটি নিয়মিত পান করলে নাক দিয়ে জল পড়া বন্ধ হয়, সেই সঙ্গে শ্বাসকার্যে বাধা হয়ে ওঠা কফ বুক থেকে বেরিয়ে যেতে শুরু করে। তাই তো দ্রুত সর্দি এবং কাশি সারাতে আদা চা খাওয়ার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

দারচিনি, লেবু এবং মধু
সর্দি কাশিতে একদম কাবু হয়ে গেছেন? কিছুতেই সারাতে পারছেন না? তাহলে ম্যাজিক তো একটা করতেই হবে। তো সেই ম্যাজিকের হদিশ পাবেন আপনার রান্নাঘরেই। দারচিনি, মধু আর লেবু। ব্যস, এতেই সর্দি-কাশি আপনাকে ছেড়ে একদৌড়ে নিরুদ্দেশ। এই তিনটি উপাদান মিশিয়ে আপনাকে একটি সিরাপ বানাতে হবে। শুধু নিয়মিত পান করতে হবে। তাহলেই কেল্লাফতে!

হালকা গরম জল
হালকা গরম জল সর্দি, কাশি এবং গলা বসে যাওয়ার মতো সমস্যায় দারুণ কাজ করে। এটি ঠাণ্ডা লেগে গলা ফুলে যাওয়া এবং যে কোনও সংক্রমণ থেকেও শরীরকে রক্ষা করে।

হলুদ এবং দুধ
শরীরে কোথাও আঘাত লাগলে অনেকেই দুধে হলুদ মিশিয়ে পান করেন। এছাড়াও আরও একটি গুণ রয়েছে এই পানীয়ের। তা হল এটি সর্দি-কাশি সারাতে দারুণ কাজ করে। তাই তো এই সময় সুস্থ থাকতে শুতে যাওয়ার আগে হলুদ মেশানো দুধ পান করার পরামর্শ দেওয়া হয়।

নুন মেশানো জলে গারগেল করা
সর্দিকাশি,গলা ব্যাথার মতো সমস্যায় দারুণ কাজ করে নুন মেশানো জল। এই জল দিয়ে গারগেল করলে সর্দি, কাশি দ্রুত সেরে যায়। এছাড়াও, এই জলের মধ্যে এক চিমটে হলুদ দিয়ে দিলে দ্রুত উপকার পাওয়া যায়।

ব্র্যান্ডির সঙ্গে মধু
ব্র্যান্ডি শরীর গরম রাখতে দারুণভাবে সাহায্য করে। এছাড়াও, সহজে বুকে ঠাণ্ডা বসে যেতে দেয় না। আর এর মধ্যে যদি মধু মেশানো যায়, তাহলে তো কথাই নেই। তাই সর্দি, কাশির সমস্যায় ব্র্যান্ডি এবং মধু খেলে খুব উপকার পাওয়া যায়।

আইএনবি:বিভূঁইয়া

এ বিভাগের আরো সংবাদ

শেয়ার করুন: