রাত ৯:৫৬, সোমবার, ২২শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং

শীতে অ্যাজমা রোগীদের করণীয় স্বাস্থ্য

আইএনবি নিউজ টোয়েন্টিফোর.কম

জানুয়ারি ১১, ২০১৮

স্বাস্থ্য ডেস্ক:ফুসফুসজনিত একটি রোগ অ্যাজমা বা হাঁপানি । চাপা উত্তেজনা অনুভব করলে এসব রোগীদের শ্বাস নিতে অনেক কষ্ট হয়। সাধারণত অ্যালার্জি, ঠাণ্ডা সমস্যা, শ্বাসযন্ত্রের সংক্রমণ এবং চাপের কারণে হাঁপানি রোগীরা শ্বাস নিতে পারেন না। শীতকালে এই রোগের প্রকোপ অনেক বেড়ে যায়। তাই এ সময় অ্যাজমা রোগীদের কিছু বাড়তি সতর্কতা নেওয়া জরুরি।এক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট ‘এভরিডেহেলথ’ অবলম্বনে জেনে নিন শীতে অ্যাজমা রোগীরা কী করবেন-

হাত ধুয়ে নিন অ্যাজমা প্রতিরোধের একটি ভালো উপায় হতে পারে হাত ধোয়া। বিশেষজ্ঞরা বলেন, অ্যাজমা প্রতিরোধে সাবান এবং পানি দিয়ে ভালোভাবে হাত পরিষ্কার করুন। অ্যালকোহল-ভিত্তিক স্যানিটাইজার এবং ভেজা তোয়ালা এড়িয়ে চলুন। এ ছাড়া বাড়ির চারপাশে জীবাণু ছড়ানোর উপকরণগুলো একেবারেই সরিয়ে ফেলুন। পাশাপাশি আপনার সন্তানদেরও ভালোভাবে হাত ধোয়ার ওপর গুরুত্ব দিন।

ফ্লু ভ্যাকসিন ছয় মাস বা তার বেশি বয়সের লোকদের ফ্লু ভাইরাস থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য ফ্লু ভ্যাকসিন নেওয়ার সুপারিশ করেছে রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র (সিডিসি)। তাহলে শীতেও অ্যাজমা আপনাকে কাহিল করতে পারবে না। অ্যাজমার লক্ষণগুলো নিয়ন্ত্রণে রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে এই ভ্যাকসিন। বিশেষজ্ঞরা বলেন, ফ্লু ভাইরাসকে ধ্বংস করতে সাহায্য করে ফ্লু ভ্যাকসিন। অারও বেশি সুরক্ষায় নিউমোনিয়ার ভ্যাকসিনও নিতে পারেন।

আগুনের পাশে বসবেন না শীতে শরীর গরম করতে অনেকেই কাঠ-কয়লা জ্বালিয়ে তার পাশে বসে থাকেন। অ্যাজমা রোগীদের এই কাজটি কখনই করা উচিত নয়। বিশেষজ্ঞরা বলেন, ‌আমাদের কাছে এর প্রমাণ আছে এবং আমরা বুঝতে পারি জলন্ত কাঠ তামাক পোড়ার মতোই। তারা বলেন, ধোঁয়া তো ধোঁয়াই এবং আপনি যদি অ্যাজমা রোগী হন তাহলে এই ধোঁয়া আপনার ফুসফুসে জ্বালাপোড়া বাড়াবে।

মুখ বন্ধ রাখুন ফুসফুস ভালো রাখতে অ্যাজমা রোগীদের বেশিরভাগ সময় মুখ বন্ধ রাখা উচিত। এক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞরা বলেন, অ্যাজমা রোগীরা মুখ নয়, অবশ্যই নাক দিয়ে শ্বাস নিবেন। আবার নাকে মাফরার কিংবা স্কার্ফ পেঁচিয়েও শ্বাস নিতে পারেন। এতে করেও সংক্রমণের আশঙ্কা কমবে।

আইএনবি:বিভূঁইয়া

এ বিভাগের আরো সংবাদ

শেয়ার করুন: