Monday, December 9, 2019
Monday, December 9, 2019

জাতীয়

রাজধানীতে স্বামীর ছুরিকাঘাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীর মৃত্যু

Saturday, November 30, 2019

আইএনবি নিউজ: রাজধানীর কুড়িল চৌরাস্তা এলাকায় স্বামী সাফকাত হাসান রবিন ছুরিকাঘাতে কানিজ ফাতেমা টুম্পা (২৫) নামের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার রাতে তাকে ছুরিকাঘাত। তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার রাতে তার মৃত্যু হয়। টুম্পা শান্তা মারিয়াম ইউনিভার্সিটির বিবিএ শেষ বর্ষের ছাত্রী ছিলেন।

টুম্পার বাড়ি বরিশালের বাকেরগঞ্জের মধ্য কাটাদিয়া গ্রামে। তার পরিবার কুড়িল চৌরাস্তা এলাকায় থাকেন। চার বোনের মধ্যে সবার বড় ছিলেন টুম্পা। কয়েকদিন আগে জন্মদিন উদযাপন করা টুম্পা স্বপ্ন দেখছিলেন ব্যাংকার হওয়ার।

টুম্পার ছোটো বোন আয়শা আক্তার জানান, কুড়িল এলাকার সাফকাত হাসান রবিনের সঙ্গে টুম্পার দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। দুই মাস আগে রবিন টুম্পাকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর টুম্পা রবিনদের বাসায় থাকা শুরু করে। কিন্তু রবিন মাদকাসক্ত হওয়ায় বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে পারিবারিক সমস্যা শুরু হয়। বৃহস্পতিবার টুম্পাই বাবা-মাকে ফোন করে তাকে নিয়ে যেতে বলে। তার খালা নাজমা তাকে আনতে যান। আসার পথে চৌরাস্তায় প্রকাশ্যে পেছন থেকে টুম্পার পিঠে রবিন ছুরিকাঘাত করে। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কুর্মিটোলা হাসপাতালে নেয়া হয়। রাতে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেডিকেলের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। সেখানে শুক্রবার রাতে তার মৃত্যু হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী টুম্পার খালা বলেন, টুম্পা বলেছে তুমি ভালো হও। আজকে আমি তোমার বাসায় যাব না কাল আস তুমি। কালকে যাব। এই বলে চলে যাওয়ার সময় রবিন পেছন থেকে টুম্পাকে ছুরিকাঘাত করে।

ভাটারা থানার ওসি মোক্তারুজ্জামান জানান, এ ঘটনায় নিহত ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে কেউ অভিযোগ করেনি। তবে মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। অভিযুক্ত রবিনকে আটকের চেষ্টা চলছে। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে।

আইএনবি/বিভূঁইয়া