রাজধানীতে গলায় ফাঁস দিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীর আত্মহত্যা!

1

আইএনবি ডেস্ক: রাজধানীর শ্যামপুর ফরিদাবাদ এলাকার এক গৃহবধূ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। নিহতের নাম সেতু রানী ঘোষ (২৮) । তার স্বামী অজিত ঘোষ রনি সৌদি আরব প্রবাসী।

রোববার (৯ জানুয়ারি) দিনগত রাত ১টার দিকে সেতু রানীকে অচেতন অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

সোমবার (১০ জানুয়ারি) শ্যামপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সজিব সাহা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, রোববার দিনগত রাতে ফরিদাবাদ হরিচরন রোডের বাসায় গলায় ফাঁস দেন ওই গৃহবধূ। স্বজনরা দেখতে পেয়ে আজগর আলী হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে সেখান থেকে ঢামেকে নিয়ে এলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

কী কারণে সেতু রানী আত্মহত্যা করেছেন, তা জানাতে পারেনি পুলিশ। তার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।

সেতু রানীর ভাই পীযুষ ঘোষ বলেন, তাদের বাড়ি মুন্সিগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান উপজেলায়। সেতু শ্যামপুর ফরিদাবাদ হরিচরন রায় রোডে শ্বশুরবাড়িতে থাকতেন। তার ছয় বছরের এক মেয়ে রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, রোববার বিকেলে বোনজামাই সৌদি থেকে ফোনে জানান, বাসায় ঝামেলা হয়েছে। পরে দ্রুত ঢাকায় এসে দেখি, সেতুকে মুমূর্ষু অবস্থায় আজগর আলী হাসপাতালে নিয়ে গেছে। পরে সেখান থেকে রাতে ঢাকা মেডিক্যালে নিয়ে গেলে মারা যায়।

পীযুষ অভিযোগ করে বলেন, সেতুকে মানসিক ও শারীরিকভাবে নির্যাতন করা হতো। সৌদি আরবে থাকা সেতুর স্বামীকে মিথ্যা কথা বলে তাকে বকা খাওয়াইতো শাশুড়ি। আবার নিজেরাও শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করত। এই কারণে আমার বোন আত্মহত্যা করেছে।

 

আইএনবি/বিভূঁইয়া