রক্তাক্ত বিছানার ছবি প্রকাশ করে পরীমনির সংবাদ সম্মেলনের ঘোষণা

6

বিনোদন ডেস্ক:রাজ-পরীমনি তারকা দম্পতির সংসারে বিচ্ছেদের সুর শোনা যাচ্ছে। এরই মধ্যে বিয়েবিচ্ছেদের চিঠি পাঠাবেন বলেও জানিয়ে দিয়েছেন পরীমনি। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানোর আগেই আজ প্রকাশ করলেন রক্তাক্ত বিছানার কয়েকটি ছবি।

নতুন বছরের প্রথম ভোরে পরীমনি তার ফেসবুকে এই দুটি ছবি প্রকাশ করেন। তাতে দেখা যায়, বিছানার বিভিন্ন স্থানে লেগে আছে রক্তের দাগ। ছবির ক্যাপশনে লিখেছেন—‘হ্যাপি নিউ ইয়ার। সংবাদ সম্মেলন, লোডিং…।’ এ ছবির বিষয়ে জানতে পরীমনির সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

গত ৩০ ডিসেম্বর মধ্যরাতে পরীমনি ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেন, ‘হ্যাপি থার্টিফার্স্ট এভরিওয়ান! আমি আজ রাজকে আমার জীবন থেকে ছুটি দিয়ে দিলাম এবং নিজেকেও মুক্ত করলাম একটা অসুস্থ সম্পর্ক থেকে। জীবনে সুস্থ হয়ে বেঁচে থাকার থেকে জরুরি আর কিছুই নেই।’

রাজের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি প্রসঙ্গে পরীমনি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘বেশ কিছুদিন ধরেই সমস্যা হচ্ছিল। সমস্যা কাটিয়ে সন্তানের মুখের দিকে তাকিয়ে একসঙ্গে থাকার চেষ্টা করেছি, পারলাম না। তার আচার-আচরণ একসঙ্গে থাকার পরিস্থিতি নাই। তাই বাধ্য হয়ে বাসা ছেড়ে আলাদা হয়ে গেলাম। আমার মনমানসিকতা এখন ভালো নাই, এর বেশি আর কিছু বলতে পারছি না।’

রাজের সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়েছে কি না এমন প্রশ্নের উত্তরে পরীমনি বলেন, ‘এখনো বিচ্ছেদ হয়নি। তবে আমি সম্পর্ক ছিন্ন করে রাজের বাসা থেকে বেরিয়ে এসেছি। আজ থেকে আমরা আলাদা হয়ে গেলাম। শিগগির বিচ্ছেদের চিঠি পাঠিয়ে দেব।’

গত বছর ‘গুণিন’ সিনেমার শুটিং সেটে প্রেমের সম্পর্কে জড়ান পরীমনি ও শরিফুল রাজ। গোপনে বিয়ের পর এ বছরের জানুয়ারিতে বিয়ে ও অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর দেন পরীমনি। গত ১০ আগস্ট রাজ-পরীর কোলজুড়ে আসে এক পুত্রসন্তান, নাম শাহেম মুহাম্মদ রাজ্য।

 

আইএনবি/বিভূঁইয়া