Monday, December 16, 2019
Monday, December 16, 2019

সারাদেশ

যৌতুক মামলায় পুলিশ সার্জেন্ট কারাগারে

Monday, December 2, 2019

বগুড়া প্রতিনিধি: ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট তরিকুল ইসলামকে যৌতুক দাবি ও স্ত্রীকে মারধর করার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় কারাগারে পাঠানো হয়েছে। সোমবার (২ ডিসেম্বর) দুপুরে জয়পুরহাটের চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

সার্জেন্ট তরিকুল ইসলাম বগুড়া ট্রাফিক পুলিশে কর্মরত ছিলেন। তিনি জয়পুরহাট জেলার ক্ষেতলাল উপজেলার নাজিরপাড়া গ্রামের তোজাম্মেল হোসেনের ছেলে।

জানা গেছে, নিজ এলাকার গোলাম মোস্তফার মেয়ে মায়া আকতারকে চলতি বছরের ১৪ আগস্ট দেখতে গিয়ে পছন্দ করেন সার্জেন্ট তরিকুল ইসলাম। কিন্তু চাকরি স্থায়ী না হওয়ায় তিনি কাজীর মাধ্যমে মৌখিক ভাবে মায়া আকতারকে বিয়ে করেন। বিয়ের পরেই তরিকুল ২০ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করেন। টাকা না পেলে তিনি বিয়ের কাবিন নামা করবেন না বলে জানিয়ে দেন। পরে উভয় পক্ষের সমঝোতায় ১০ লাখ টাকা যৌতুক দিয়ে বিয়ে রেজিস্ট্রি করার সিদ্ধান্ত হয়।

নভেম্বর মাসে তরিকুলের চাকরি স্থায়ী হলে ১১ নভেম্বর তাদের বিয়ে রেজিস্ট্রি করা হয়। বিয়ের সময় মেয়ে পক্ষ যৌতুকের টাকা পরিশোধ না করে ৬ লাখ ১ টাকা দেনমোহর ধার্য করে বিয়ে রেজিস্ট্রি করেন। এদিকে যৌতুকের টাকা না পাওয়ায় তরিকুল মায়াকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে বাড়ি থেকে বের করে দেন। স্ত্রী মায়া আকতার বাবার বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে ১৪ নভেম্বর আদালতে মামলা দায়ের করেন। স্ত্রীর দায়ের করা মামলায় সার্জেন্ট তরিকুল সোমবার আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন। কিন্তু বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

আইএনবি/বিভূঁইয়া