ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেনে ঢাকায় আসবে রাজশাহীর আম

35

নিজস্ব প্রতিবেদক
করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে মৌসুমি ফল নিয়ে বেকায়দায় পড়ে রাজশাহী অঞ্চলের কৃষক ও ব্যবসায়ীরা। রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ-নাটোরের বাগানগুলোতে আম উৎপাদিত হলেও তা রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ক্রেতাদের কাছে পৌঁছানো একটি বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাড়ায় তাদের জন্য। ব্যবসায়ী ও কৃষকদের দাবীর প্রেক্ষিতে কৃষি মন্ত্রণালয়ের একটি বৈঠকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সহযোগীতায় চায় কৃষি মন্ত্রণালয়। বিষয়টি যাচাই বাছাই ও প্রক্রিয়া শেষে  শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে এ বিশেষ ট্রেনের যাত্রা। রহনপুর থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও রাজশাহী হয়ে আম নিয়ে দু’টি পার্সেল ট্রেন ঢাকার পথে চলাচল করবে।
আমবাহী বিশেষ পার্সেল ট্রেনের নাম দেওয়া হয়েছে ‘ম্যাঙ্গো স্পেশাল ১, ২’। ট্রেন দুটি সপ্তাহের প্রতিদিন চলাচল করবে। আর আমের পাশাপাশি সব ধরনের শাক-সবজি, ফলমূল, ডিমসহ উত্তরের বিভিন্ন কৃষিজাত দ্রব্যও এতে পরিবহন করা হবে।
রেলের পশ্চিমাঞ্চল সহকারী চীফ অপারেটিং সুপারিন্টেনডেন্ট আওয়াল আরিফ বলেন, প্রতিদিন বিকেল ৪টায় আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছাড়বে বিশেষ পার্শেল ট্রেন ম্যাঙ্গো স্পেশাল। আম নিয়ে ঢাকায় পৌঁছাবে রাত ১টা নাগাদ। ৬টি বগি নিয়ে প্রতিটি ট্রেনে এক সাথে ২৭০ টন আম যাবে ঢাকায়।
আম উঠবে চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন, আমনুরা বাইপাস, রাজশাহীর কাঁকনহাট, রাজশাহী, সরদহ রোড, আড়ানী এবং নাটোরের আবদুলপুর স্টেশনে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ঢাকায় আম নিতে কেজিপ্রতি ভাড়া লাগবে এক টাকা ৩০ পয়সা। আর রাজশাহী থেকে ভাড়া এক টাকা ১৭ পয়সা। ব্যবসায়ীরা আম নামাতে পারবেন টাঙ্গাইল, মির্জাপুর, কালিয়াকৈইর, হাইটেক সটি, জয়দেবপুর, মৌচাক, টঙ্গি, বিমানবন্দর, ক্যান্টনমমেন্ট এবং কমলাপুরে।
তিনি আরো বলেন, করোনাকালে সীমিত রয়েছে এই রুটের ট্রেন চলাচল। এই পরিস্থিতিতে ট্রেন দুটি চলাচল করবে। তবে অন্যান্য ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হলে বিশেষ এই ট্রেন চালুর বিষয়ে পুনরায় সিদ্ধান্ত হবে বলেও জানান এই রেল কর্মকর্তা।