বাউলশিল্পী রিতা দেওয়ানকে গ্রেপ্তারে পরোয়ানা জারি

19

বিনোদন ডেস্ক: মহান আল্লাহকে নিয়ে পালা গানে কটূক্তির অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় বাউলশিল্পী রিতা দেওয়ানসহ তিনজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

বুধবার বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আস্সামছ জগলুল হোসেন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) দেয়া প্রতিবেদন আমলে নিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করতে এই পরোয়ানা জারি করেন।

মামলার বাদী অ্যাডভোকেট ইমরুল হাসান ও ট্রাইব্যুনালের পেশকার শামীম আল মামুন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। রিতা দেওয়ান ছাড়া অন্য যে দুইজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়েছে তারা হলেন শাজাহান ও ইকবাল।

এর আগে গত ২৯ অক্টোবর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই পুলিশ পরিদর্শক মিজানুর রহমান রিতা দেওয়ানসহ তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়ে প্রাথমিকভাবে সত্যতা প্রমাণ পাওয়া যাওয়ায় এ প্রতিবেদন দাখিল করেন ট্রাইব্যুনালে ।

গত ২ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আস্সামছ জগলুল হোসেনের আদালতে ঢাকা আইনজীবী সমিতির সদস্য অ্যাডভোকেট মো. ইমরুল হাসান ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি করেন। এরপর পিবিআইকে অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন বিচারক।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৮ (১) ধারায় করা অভিযোগে বলা হয়েছে, একটি পালা গানের আসরে প্রতিপক্ষকে আক্রমণ করতে গিয়ে রিতা দেওয়ান মহান আল্লাহকে নিয়ে চরম ধৃষ্টতা, অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করেন। ইউটিউবে সেই পালা গানের ভিডিও ছড়িয়ে পড়ায় ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগ আনেন আইনজীবী ইমরুল হাসান।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৮ (১) ধারায় বলা হয়েছে- ‘যদি কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠী ইচ্ছাকৃতভাবে বা জ্ঞাতসারে ধর্মীয় মূল্যবোধ বা অনুভূতিতে আঘাত করিবার বা উস্কানি প্রদানের অভিপ্রায়ে ওয়েবসাইট বা অন্য কোনো ইলেকট্রনিক বিন্যাসে এমন কিছু প্রকাশ বা প্রচার করেন বা করান, যা ধর্মীয় অনুভূতি বা ধর্মীয় মূল্যবোধের উপর আঘাত করে, তাহলে উক্ত ব্যক্তির অনুরূপ কার্য হইবে একটি অপরাধ। যদি কোনো ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এর অধীন কোনো অপরাধ সংঘটন করেন, তাহা হইলে তিনি অনধিক ৫ (পাঁচ) বৎসর কারাদণ্ডে বা অনধিক ১০ (দশ) লক্ষ টাকা অর্থদণ্ডে বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন’।

রিতা দেওয়ানের গানটি ইউটিউবে ছড়ানোর পর গত ১ ফেব্রুয়ারি ক্ষমা চেয়েছেন বাউলশিল্পী রিতা দেওয়ান। ‘গান রুপালি এইচডি’ নামে একটি ইউটিউব চ্যানেলে দুই মেয়ে পাশে নিয়ে একটি সাক্ষাৎকারে তিনি ক্ষমা চান।

এছাড়া রিতা দেওয়ানের বিরুদ্ধে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতেও একটি অভিযোগ করা হয়েছে।

রাসেল মিয়া নামের এক নির্মাতা ও অভিনেতা রিতার বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার অভিযোগ এনেছেন। দণ্ডবিধির ২৯৫ (ক), ২৯৮ ধারায় অভিযোগটি আনা হয়েছে।
ঢাকাটাইমস

আইএনবি/বিভূঁইয়া