বন্ধ ঘোষণা ট্রেন, বিমান, নৌযান ও গণপরিবহণ চলাচল

0

আইএনবি নিউজ: সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) সকালে মন্ত্রণালয় থেকে এক ভিডিওবার্তায় নৌযান ও গণপরিবহণ বন্ধের কথা জানান। আগামী ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত কার্যকর থাকবে।

তিনি জানান, করোনা ভাইরাসেরর বিস্তার রোধে ও জনগণের স্বার্থে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তবে ট্রাক, কাভার্ডভ্যান, ঔষধ, জরুরি সেবা, জ্বালানি, পচনশীল পণ্য পরিবহণ-এ নিষেধাজ্ঞার আওতার বাইরে থাকবে। পণ্যবাহি যানবাহনে কোনো যাত্রী পরিবহণ করা যাবে না।

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে বিকেল থেকে রেলওয়ের সব লোকাল ও মেইল ট্রেন বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। রেলমন্ত্রী মোঃ নূরুল ইসলাম সুজন মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) দুপুরে এখবর জানান। এদিকে আগামী ২৬ মার্চ থেকে দেশে সব ধরনের ট্রেনের টিকিট বিক্রিও বন্ধ ঘোষণা করা হচ্ছে। তিনি জানান, পরবর্তী ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত বলবৎ থাকবে।

এছাড়া অভ্যন্তরীণ রুটে বিমান চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) রাত ১২টার পর থেকে দেশের সব বিমানবন্দরের অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট বন্ধ থাকবে। বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মহিবুল হক একথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, দেশের সব অভ্যন্তরীণ বিমানবন্দর বন্ধ থাকবে রাত থেকে। পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত কার্যকর থাকবে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে আগামী ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। এসময় সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানও বন্ধ থাকবে। আগামী ২৬ মার্চ সরকারি ছুটি, ২৭ ও ২৮ মার্চ সাপ্তাহিক ছুটির সঙ্গে ২৯ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। এরসঙ্গে ৩ ও ৪ এপ্রিল সাপ্তাহিক ছুটি যুক্ত হবে। করোনাভাইরাসের বিস্তৃতি রোধে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

রোববার (২২ মার্চ) দেশের সুপারমার্কেটগুলোসহ সব দোকান বন্ধের ঘোষণা দেওয়া হয়। দোকান মালিক সমিতির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ২৫ মার্চ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত দোকানগুলো বন্ধ থাকবে। তবে, কাঁচাবাজার, ওষুধের দোকান এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান খোলা থাকবে।

আইএনবি/বিভূঁইয়া