নারী আইনজীবীকে ব্ল্যাকমেইল করে দেড় বছর ধরে ধর্ষণ! চিকিৎসক গ্রেপ্তার

59

রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীন গরীর ডিসি অফিস এলাকায় নারী আইজীবিকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে এক চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ শনিবার সকালে নগরীর ডিসি অফিস এলাকা থেকে রাজপাড়া থানা পুলিশ তাকে আটক করে।

অভিযুক্ত চিকিৎসকের নাম সাখাওয়াত হোসেন রানা (৪০)। তিনি রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের চক্ষু বিশেষজ্ঞ। তার বাড়ি নওগাঁর পোরশা উপজেলায়। নগরীর টিকাপাড়া এলাকায় তিনি ভাড়া থাকেন। অপরদিকে অভিযোগকারী রাজশাহী জেলা জজ আদালতে শিক্ষানবিশ আইনজীবী হিসেবে কাজ করেন। নগরীর ডিসি অফিস এলাকার একটি বাসায় বান্ধবীর সঙ্গে ভাড়া থাকেন তিনি।

ওই নারীর অভিযোগ, প্রায় দেড় বছর আগে ডা. রানার সঙ্গে তার পরিচয় হয়। এরপর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে রানা তাকে ধর্ষণ করে এবং এর ভিডিওচিত্র ধারণ করে। তারপর সেই ভিডিওচিত্র ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে গত দেড় বছর হলো তাকে ধর্ষণ করে আসছিল রানা। গতকাল সকালে রানা ওই নারীর ভাড়া বাসায় গিয়ে তার সঙ্গে জোরপূর্বক শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে চায়। এ সময় ওই নারীর বান্ধবী কৌশলে পুলিশকে ফোন দেয় এবং বাইরে এসে স্থানীয়দেরকে জানায়। স্থানীয়রা ডা. রানাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

রাজপাড়া থানার ওসি শাহাদাত হোসেন জানান, পুলিশ ডা. রানাকে আটক করেছে। ওই নারী বাদী হয়ে চিকিৎসকের নামে মামলা করেছেন। তবে চিকিৎসক দাবি করছেন তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল।

আইএনবি/বি.ভূঁইয়া