দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৯ কোটি ৯৫ লাখ ৬৫ হাজার

0

প্রযুক্তি ডেস্ক:বর্তমানে দেশের প্রায় ৯৯ শতাংশ মোবাইল নেটওয়ার্ক কভারেজের আওতায় এসেছে। ডিজিটাল সেন্টারের মাধ্যমে ১৫০ ধরনের সরকারি ও বেসরকারি সেবা নিশ্চিত করেছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। গত বছরের অক্টোবরের হিসাব অনুযায়ী মোবাইল ফোন গ্রাহকের ১৬ কোটি ৪১ লাখ ৭০ হাজার। একই সময়ে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৯ কোটি ৯৫ লাখ ৬৫ হাজারে উন্নতি হয়েছে। সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এ কার্যক্রমের মাধ্যমে দেশের ব্যাংক ও আর্থিক সেবার বাইরে থাকা প্রায় ৬০ শতাংশ মানুষকে আর্থিক সেবাভুক্তি কার্যক্রমের আওতায় আনা হয়েছে। তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়নের ফলে ব্যাংকিং সেবা প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে পৌঁছে গেছে। বর্তমানে দেশের অধিকাংশ সরকারি-বেসরকারি ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে অর্থ লেনদেন করছে। মোবাইল ব্যাংকিং অর্থ লেনদেনের একটি জনপ্রিয় মাধ্যম এবং অলটারনেটিভ পেমেন্ট চ্যানেল হিসেবে গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে। ২০১৯ এর নভেম্বর পর্যন্ত এ চ্যানেলের মাধ্যমে প্রায় ৩৮ হাজার কোটি টাকা লেনদেন হয়। ইন্টারনেট ব্যবহারের মাধ্যমে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির বহুমাত্রিক সমন্বয় করা হয়েছে। মূলত ডিজিটাল অন্তর্ভুক্তির কারণে অর্থ ব্যবস্থায় পদ্ধতিগত পরিবর্তন ঘটছে যা টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহায়ক হবে।

মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা ও ওয়ার্ড মিলে ডিজিটাল সেন্টারের সংখ্যা ৫ হাজার ৮৬৫টি। ডিজিটাল এ সুবিধার মাধ্যমে ইউনিয়নগুলোতেও ব্রডব্যান্ড ইন্টানেটের কানেক্টিভিটি পৌঁছে গেছে। বর্তমানে হাওড়, সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকার মানুষসহ ‘কানেক্টিং বাংলাদেশ প্রকল্পের’ আওতায় ৭৭২টি দূর্গম ইউনিয়নের জনগোষ্ঠী ইন্টারনেট সুবিধা পাচ্ছে।

আইএনবি/বিভূঁইয়া