সকাল ১০:০৮, মঙ্গলবার, ২১শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং

ছাত্রীকে ধর্ষণ, শিক্ষকসহ গ্রেফতার দুই অপরাধ, রাজশাহী, সারাবাংলা

আইএনবি নিউজ টোয়েন্টিফোর.কম

আগস্ট ২, ২০১৭

রাজশাহী প্রতিনিধি:এক তরুণীকে আবাসিক হোটেলে নিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রায় ২৫ বছর বয়সী ওই তরুণীর বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার নামো শংকরবাটি নতুনহাট মোল্লাপাড়া এলাকায়। পুলিশ বলছে, সম্প্রতি ওই তরুণীর রাজশাহীর দুই যুবকের সঙ্গে ফেসবুকে বন্ধুত্ব হয়। এরপর তাদের সঙ্গে দেখা করতে এসে ধর্ষণের শিকার হন ওই তরুণী।

রাজশাহী মহানগরীর শাহ মখদুম থানার এক আবাসিক হোটেলে সোমবার দুপুরে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই তরুণী মঙ্গলবার রাতে থানায় মামলা করেন। পরে ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে ওই তরুণীকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) পাঠায় পুলিশ। এরপরই ঘটনাটি জানাজানি হয়।

জানাযায়. তাদের একজন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক বাদশা। তার বাড়ি রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার মচমইল এবং তার বন্ধু নাহিদের বাড়ি একই উপজেলার হাসনিপুর গ্রামে। তারা দুইজনেই রাজশাহী শহরের বোয়ালিয়া থানার সাগরপাড়া এলাকায় বসবাস করেন।

নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রীকে শাহমুখদুম থানার ভিকটিম সাপর্ট সেন্টারে রাখা হয়েছে। বুধবার তার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য রাজশাহী মেডিকলে কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে পাঠানোর কথা রয়েছে বলে জানা গেছে।

শাহমুখদুম থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আনোয়ার হোসেন তুহিন জানান, গত ৩১ জুলাই চিকিৎসার জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে রাজশাহীতে আসেন ওই ছাত্রী। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বহির্বিভাগে চিকিৎসা শেষে দুপুরে তিনি বাদশাকে ফোন করেন। এসময় বাদশা তাকে নগরীর গৌরহাঙ্গা এলাকায় তার বন্ধু নাহিদের দোকানে (ইজিটাচ কম্পিউটার) ডেকে নেন। ওই ছাত্রী দোকানে গেলে বাদশা তাকে ‘বান্ধবী’ হিসেবে নাহিদের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়।

এরপর দুপুরে খাবারের কথা বলে নগরের শাহমুখদুম থানার নওদাপাড়া এলাকার গ্রিন গার্ডেন নামের একটি বাগান বাড়িতে (গেস্ট হাউজ) নিয়ে যায়। সেখানে একটি কক্ষে রেখে প্রথমে বাদশা ও পরে নাহিদ ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে। এরপর সন্ধ্যা ৭টার দিকে ওই ছাত্রীকে হোটেলে ফেলে রেখে চলে যায় তারা।

পরে হোটেল কর্মচারীদের সহযোগিতায় রাত ৮টার দিকে শাহমুখদুম থানায় গিয়ে ধর্ষণ মামলা করেন। মঙ্গলবার ভোরে গৌরহাঙ্গা এলাকা থেকে পুলিশ বাদশা ও নাহিদকে গ্রেফতার করে। বিকালে তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

আইএনবি: বিভূঁইয়া

এ বিভাগের আরো সংবাদ

শেয়ার করুন: