চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের ফলে সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা

2

লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড ডাঙ্গাপাড়া গ্রামে ওয়াজেদ আলী (৩৫) তৌহিদুল ইসলামের ছেলে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রীকে (১২) ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। ধর্ষণের ফলে ছাত্রীটি প্রায় সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ওয়াজেদ আলীকে প্রধান আসামি করে পাটগ্রাম থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, চতুর্থ শ্রেণির ওই ছাত্রীর (১২) দিনমজুর মা-বাবা বুড়িমারীতে পাথর ভাঙার মেশিনে কাজ করতেন। বাড়িতে অন্য কেউ না থাকার সুযোগে প্রতিবেশী একই এলাকার ওয়াজেদ আলী প্রায় এক বছর ধরে ফুসলিয়ে ও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে মেয়েটিকে প্রায়ই ধর্ষণ করে। এতে মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।

পরিবারের লোকজন মেয়েটির শারীরিক পরিবর্তন টের পেয়ে ডাক্তারি পরীক্ষায় অন্তঃসত্ত্বার বিষয়টি জানতে পারেন। পরে ওই ছাত্রী তার মা-বাবাকে ঘটনা খুলে বলে।

পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত জানান, ধর্ষণের অভিযোগে রবিবার রাতে ওয়াজেদ আলীকে প্রধান আসামি করে ওই ছাত্রীর বাবা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করতে পুলিশি অভিযান চালানো হচ্ছে।

আইএনবি/বি.ভূঁইয়া