অ্যাপল-গুগলের ভাইরাস শনাক্তকরণ প্রযুক্তি চালু হলো

4

প্রযুক্তি ডেস্ক:ভাইরাস শনাক্তকরণ প্রযুক্তি চালু হয়েছে। গুগল এবং অ্যাপলের সমন্বিত প্রচেষ্টায় তৈরি প্রযুক্তি বুধবার (২০ মে) এর প্রাথমিক ভার্শন উদ্বোধন করা হয়েছে।

এ দুই কোম্পানি জানিয়েছে, পাঁচ মহাদেশের মোট ২৩টি দেশ এখন এটি ব্যবহার করতে পারবে।

তবে কোম্পানির বেশ কয়েকটি নিষেধাজ্ঞার মধ্যে একটি হলো কর্তৃপক্ষ ব্যবহারকারীদের ফোন নম্বর নিতে পারবে না। বিশ্বের শীর্ষ দুই স্মার্টফোনের সফটওয়্যার তৈরিকারী প্রতিষ্ঠান
ব্যবহারকারীদের গোপনীয়তাকে প্রাধান্য দিয়ে প্রযুক্তির উপকারিতা হ্রাস করায় বিভিন্ন সরকার হতাশ হয়েছে।

অ্যাপল এবং গুগল জানিয়েছে, আমেরিকার বিভিন্ন রাজ্য এবং আরও ২২টি দেশ এই প্রযুক্তি ব্যবহার করতে পারবে। কিন্তু এটি এখনো স্পষ্ট নয় কতগুলো দেশ মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে এটি ব্যবহার বন্ধ করবে।

ভাইরাস বহন করছে এমন কারও সংস্পর্শে কেউ গেলে কর্তৃপক্ষ অ্যাপের মাধ্যমে তাকে শনাক্ত করে এবং তার পরীক্ষা করে। এই প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে আরও ভালোভাবে আক্রান্ত ব্যক্তিদের সংস্পর্শে কারা এসেছে তা খুঁজে বের করা যাবে।

বিভিন্ন সরকার মনে করে, যদি তারা ব্যবহারকারীদের লোকেশন শনাক্ত করে ভাইরাস সংক্রমণ স্থান শনাক্ত করতে পারে এবং তাদের কল বা মেসেজের মাধ্যমে জানিয়ে দেয় তাহলে অ্যাপ ভিত্তিক প্রচেষ্টা আরও বেশি কার্যকর হবে।

কিন্তু অ্যাপল এবং গুগল তাদের প্রযুক্তি ব্যবহার করে জিপিএস লোকেশন থেকে তথ্য সংগ্রহ অথবা ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য গ্রহণ নিষেধ করে দিয়েছে।

সাইবার নিরাপত্তা কোম্পানি সফোসের প্রধান গবেষণা বিজ্ঞানী চেস্টার ভিস্নিউস্কি বলেন, ‘প্রযুক্তি, গোপনীয়তা এবং স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মধ্যে একটি সাংঘর্ষিক অবস্থা তৈরি হয়েছে।
কিন্তু ঠিক কোথায় সমস্যাটা তা এখনো অজানা।’

আইএনবি/বি.ভূঁইয়া